আমরা বাঘ, আমাদের জন্য নাগিন নৃত্য নয়: আসিফ নজরুল

Asif nazrul

ঢাকা: সম্প্রতি টাইগারদের জয়ের উল্লাস নাগিন ডান্স বাংলাদেশ সহ সারাবিশ্বে ভাইরাল হয়ে গেছে। যার কারিগর বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু। যদিও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টাইগারদের জয়ের পর মুশফিকুর রহিমের নাগিন ডান্স সবার নজরে আসে। তারপর শুক্রবার ফের শ্রীলঙ্কাকে হারানোর পর দলীয়ভাবে নাগিন ডান্স বিশ্বগণমাধ্যমে বেশ সাড়া ফেলে।

তবে এই নাগিন নৃত্য বাংলাদেশের জন্য নয়। এমনই এক মন্তব্য করেছনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। তিনি তার ফেসবুক পেজ-এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। পাঠকদের জন্য তা হুবহু তুলে ধরা হলো।

তিনি লিখেছেন- আমিও বলি নাগিন নৃত্য বন্ধ হোক এবার। আমরা বাঘ, সাহসী জাতি। সাপের ছলাকলা, বিশ্বাসঘাতকতা আমাদের না।

আসিফ নজরুলের এই লেখার পর অনেকেই তাদের মতামত জানিয়েছেন। নাসিমা আক্তার নামে একজন লিখেছেন- আমরা বাঘ নই সাপও নই – আমরা আশরাফুল মাখলুকাতের মধ্যে শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি মানুষ । যে কোন জয়ে শুকরিয়া হিসেবে সেজদা দেয়াই উত্তম। এমন কাজে আল্লাহ বেশী খুশি হন।

ফেরদৌস লিখেছেন- খুবই নীচু স্তরের বিজয় উদযাপন এটা। ভদ্র খেলোয়ারদের আচরণের সাথে মানানসই নয়। কাওসার হোসাইন লিখেছেন- আমিও আপনার সাথে একমত স্যার, আমরা বিশ্বকে বাঘের গর্জন দেখাব সাপের নৃত্য নয়। আমরা সাহসী জাতি, আমরা ছলনাময়ী নই।

বাংলাদেশে মানবাধিকারের বড় মুখগুলো এখন কোথায়: আসিফ নজরুল
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফিলিপাইন থেকে নিজের ফেজবুক পেজ-এ একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। পাঠকদের জন্য তা হুবহু তুলে ধরা হলো।

তিনি তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন- আমি এখন ফিলিপাইনে অবস্থান করছি আর শুধু ছাত্রলীগের বর্বর আক্রমণের ভিডিওগুলো দেখেছি। তাদের জন্য ধিক্কার!

তবে ক্ষমতাসীন দলের অপরাজনীতি তাদেরকে আরো বড় দানবে পরিণত করেছে। এটা আমাকে আশ্চর্য করেছে যে, বাংলাদেশে মানবাধিকারের বড় মুখগুলো এখন কোথায়?

তার এই স্ট‌্যাটাসের পর অনেকেই এতে তাদের মন্তব্য করেছেন। এম এস রহমান সাইদ লিখেছেন, হায়রে দেশ! ছাত্রী হয়ে আরেকজন ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে? এ কোন আজব রাজনীতির দেশে আমরা বসবাস করি। পৃথিবীতে এরকম দেশ আর একটা আছে কি? লজ্জা! লজ্জা! লজ্জা জাতি হিসেবে সত্যিই খুব লজ্জার!

মাহফুজ রহমান লিখেছেন, আমরা যারা আওয়ামীলীগ করি বা করিনা সবাই মানুষ। আওয়ামীলীগ বা তাদের সংগঠনগুলো যা করছে তার জন্য তাদের নির্মম ও ভয়াবহ পরিসমাপ্তি যখন হবে তখন হয়তো আমরা মানুষরা কাঁদব তাদের করুণ রোদন দেখে শুধু মানুষ হওয়ার কারণে আওয়ামীলীগ হওয়ার কারণে নয়।

আরিফ আহমেদ, অবৈধ ক্ষমতায় ধড়ে রাখার জন্য আওয়ামীলীগ কত গুলি ফ্রাংকেনস্টাইন দানব সৃষ্টি করেছেন তার মধ্য ছাত্রলীগ অন্যতম। ফ্রাংকেনস্টাইন এর মতই তাদের এই দানব দ্বারাই তারা ধ্বংস হবেই।

মাসুদ রানা লিখেছেন, সুলতানা কামাল, শাওন মাহমুদ, মুরগি কবির এবং বিশ্বনেত্রী কই? ছাত্রলীগের এক কুত্তী আরেক কুত্তীর লেজ কামড়িয়ে ছিড়ে ফেলছে প্রকাশ্যে। কেউ তো বাধা দিলো না। আসলে মেইন কথা হলো, ছাত্রলীগের আর ছাত্রীলীগ কোনো কথা নয়, মূল ব্যাপার হলো যেকোনো উপায়ে বাংলাদেশের নারীদের সম্ভ্রমহানি করার মাধ্যমে এদেশে ইহুদীবাদী ইসরাইল এবং হিন্দুত্ববাদী ভারতের সংস্কৃতির আবির্ভাবের জানান দেয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here