খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেলের মাহবুবে আলমের নতুন কৌশল

The attorney general's strategy in the bail hearing of Khaleda Zia

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন নিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের বিরুদ্ধে অযথা সময়ক্ষেপণের অভিযোগ এনেছেন তাঁর আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।
বৃহস্পতিবার (২৪ মে) তৃতীয় দিনের মতো দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা। বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানির জন্য আসলে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম দুপুর ২টা পর্যন্ত সময় চান। সে অনুযায়ী আদালত শুনানির জন্য দুপুর ২টার পর সময় নির্ধারণ করেন।

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন শুনানির জন্য কার্যতালিকায় ছিল। দুটি মামলা কার্যতালিকার ৫ ও ৬ নম্বরে ছিল। সেই অনুযায়ী বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মামলাটি শুনানির জন্য সিরিয়ালে আসলেও শুনানি শুরু করতে পারেননি খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এসময় খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘এ বিষয়ে আমাদের দুর্ভাগ্য খালেদা জিয়ার কারাবরণকে দীর্ঘায়িত করার জন্য অযথা সময়ক্ষেপণ করছেন।’

মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অভিযোগে বলা হয়েছে খালেদা জিয়া অবরোধ কর্মসূচি দিয়েছিলেন সেই কারণেই বাসে কর্মীরা হাঙ্গামা করেছে এবং সেখানে পেট্রোল বোমা মারা হয়েছে। সেই কারণে লোক মারা হয়েছে। কিন্তু এজাহারে বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে এটুকুই বলা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যেহেতু খালেদা জিয়ার নাম এজাহারে ছিল না, পরবর্তীতে তার নাম ৭৭ জন আসামির মধ্যে ৫১ নম্বরে এসেছে। তাঁর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট পরোয়ানা নেই। তারপরও ফৌজদারী কার্যবিধিতে ৪৯৭ ধারায় বলা হয়েছে, যেক্ষেত্রে আসামির মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে সেক্ষেত্রেও যদি মহিলা হয়, অসুস্থ হয় বা অল্প বয়স্ক হয় তাকে জামিন দেয়া যায়। এইক্ষেত্রে বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন না দেয়ার আইনগত বিধান নাই। এইক্ষেত্রে আশা করছি জামিন আদেশ আমরা পাব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here