সহজেই প্রিয়জনকে রক্ষা করুন স্ট্রোকের হাত থেকে

STROKE: মনে রাখুন শব্দটির প্রথম ৩টি অক্ষরঃ S, T এবং R. আমরা সবাই-ই যদি এই ছোট্ট সাধারণ শনাক্তকরণ উপায়টা শিখে ফেলি, তবে হয়তো আমরা স্ট্রোকের ভয়ংকর অভিজ্ঞতা থেকে আমাদের প্রিয়জন্দের রক্ষা করতে পারবো।

একটি সত্যি গল্পঃ
একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে একজন ভদ্রমহিলা হঠাত হোঁচট খেয়ে পড়ে গেলেন। উঠে দাড়িয়ে তিনি বললেন, সবকিছু ঠিক আছে, মেঝের টাইলসে তার নতুন জুতোর হীল বেধে যাওয়ায় তিনি তাতে রাজি হলেন না। সবকিছু ঠিকঠাক করে, পরিষ্কার করে তিনি নতুন করে প্লেটে খাবার নিলেন। যদিও মনে হচ্ছিলো যেন তিনি একটু কেপে কেপে উঠছেন। অনুষ্ঠানের সম্পূর্ণ সময় জুড়েই তিনি উপস্থিত থাকলেন। পরদিন দুপুরে ভদ্রমহিলা স্বামী ফোন করে জানালেন, তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সন্ধ্যা ছয়টার সময় তিনি মারা গেলেন। মূলত যে ঘটনাটি ঘটেছিল তা হলো, তিনি অনুষ্ঠানে চলাকালীন সময় স্ট্রোক করেছিলেন। সেখানে যদি কেউ জানতেন, কিভাবে স্ট্রোক সনাক্ত করা সম্ভব তাহলে হয়তো ভদ্রমহিলা আজ ও বেচে থাকতেন। সবাই যে মৃত্যুবরণ করে, তা নয়। অনেকের ঠাঁই হয় বিছানায়, সাহায্যহীন, ভরসাহীন, মূমুর্ষূ অবস্থায়। মাত্র তিনটা মিনিট সময় নিয়ে এটা পড়ে ফেলুন। একজন মতিষ্ক বিশেষজ্ঞ বলেছেন, যদি একজন স্ট্রোকের শিকার রোগীকে স্ট্রোক হবার তিন ঘন্টার মধ্যে হাসপাতালে নেয়া যায়, এবং কিভাবে রোগীকে উল্লেখ্য সময়ের মধ্যে মেডিকেল কেয়ারে নেয়া যায়।

স্ট্রোককে চিনুন-
সহজ তিনটি ধাপঃ- S, T ও R পড়ুন এবং জানুন। মাঝে মাঝে স্ট্রোকের উপসর্গ সনাক্ত করা অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। আমাদের অজ্ঞতার কারণেই নেমে আসে যাবতীয় দুর্যোগ। স্ট্রোকের শিকার রোগীর মস্তিষ্কে যখন ভয়ানক রকম ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে, পাশে দাঁড়ানো প্রিয়জনটিই হয়তো বুঝতে পারছে না, কি অপেক্ষা করছে তাদের কাছের মানুষের জীবনে।

সহজ উপায়ে স্ট্রোক সনাক্ত করার উপায়, সহজ তিনটি প্রশ্ন জিজ্ঞেস করুনঃ-

S- Smile রোগীকে হাসতে বলুন।
T- Talk রোগীকে আপনার সাথে সাথে একটি বাক্য বলতে বলুন।
উদাহারণঃ আজকের দিনটা অনেক সুন্দর।
R- Raise hands রোগীকে একসাথে দুইহাত উপরে তুলতে বলুন।
এর কোনো একটিতে যদি রোগীর সমস্যা বা কষ্ট হয়, দেরি না করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। এবং ডাক্তারকে সমস্যাটি খুলে বলুন (রোগী বলতে স্ট্রোকের শিকার সন্দেহ করা ব্যক্তি বোঝানো হয়েছে)

এছাড়াও মনে রাখতে পারেন FAST অন্য একটি সনাক্তকরন পদ্ধতি:

Stroke Symptoms FAST

সনাক্তকরণের আরেকটি উপায় হচ্ছে রোগীকে বলুন তার জিহবা বের করতে। যদি তা ভাঁজ হয়ে থাকে, বা অথবা যদি তা বেঁকে যেকোনো একদিকে চলে যায়, সেটাও স্ট্রোকের লক্ষ্ণ। দেরি না করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। একজন খ্যাতনামা হৃদবিশেষজ্ঞ বলেছেন, যদি আমরা সবাই-ই এই সহজ ব্যাপার গুলো জেনে রাখি, তবে আমরা একজনের হলেও জীবন বাঁচাতে পারবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here